বৃহস্পতিবার, ১৪ই জুন, ২০১৮

৭ কোটি মানুষকে ২ টাকায় চাল-গম: ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

নিউজ টাইম কলকাতা ডট কম
ডিসেম্বর ১৮, ২০১৫
news-image

কলকাতা: খাদ্য সুরক্ষা প্রকল্পে সাত কোটি মানুষকে প্রতি মাসে ২ টাকা কেজি দরে দু কেজি চাল, তিন কেজি গম দেবে রাজ্য সরকার। ৭০ লক্ষ মানুষ বাজার দরের অর্ধেক দামে পাবেন এক কেজি করে চাল ও গম। শুক্রবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর ঘোষণা করে বিধানসভা ভোটের মুখে ফের কল্পতরু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত, রাজ্যের ৩ কোটি ২০ লক্ষ মানুষ ইতিমধ্যেই ২ টাকা কেজি দরে চাল পায়

কিন্তু এবার সস্তায় চাল-গম প্রাপকের সংখ্যা আরও ৩ কোটি ৮০ লক্ষ বাড়তে চলেছে। অর্থাৎ মোট ৭ কোটি মানুষ প্রতি মাসে দু’টাকা কেজি দরে দু’কেজি চাল ও ৩ কেজি গম পাবে।

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, এছাড়াও দারিদ্রসীমার নীচে নন, এমন ৭০ লক্ষ মানুষকে কেন্দ্রীয় খাদ্য সুরক্ষা যোজনার আওতায় আনা হচ্ছে। তাদের সরকার বাজারদরের অর্ধেক দামে মাসে এক কেজি করে চাল ও গম দেবে।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশের মতে, গরিব ভোটব্যাঙ্কের দিকেই তাকিয়ে বিধানসভা নির্বাচনের মুখে ফের জনমোহিনী পথে মমতা। কিন্তু, অর্থনীতিবিদদের একাংশের প্রশ্ন, এভাবে চাল-ডাল-সাইকেল বিলিয়ে কি আদৌ গরিবদের প্রকৃত উন্নয়ন করা সম্ভব? এর পরিবর্তে যদি রাজ্যে শিল্প আসত, কর্মসংস্থান তৈরি হত, তাহলে মানুষ এমনিতেই নিজেদের পায়ে দাঁড়াতে পারত। তাঁদের হাতে টাকা আসত, তারা নিজেরাই নিজেদের প্রয়োজনীয় জিনিস কিনে নিত। এতে তাদের দীর্ঘমেয়াদি লাভ হত। কিন্তু, সরকার ভর্তুকি সহকারে চাল-গম দিয়ে গরিবদের আপাতত মন ভরাতে পারলেও তাদের গরিবি কিন্তু হটাতে পারছে না। দীর্ঘমেয়াদী সমস্যা থেকেই যাচ্ছে। তাই এ ধরণের জনমোহিনী কৌশলে আসলে কাদের লাভ হয়, গরীবদের না কি শাসক দলের? প্রশ্ন অর্থনীতিবিদদের একাংশের।