সোমবার, ১১ই জুন, ২০১৮

আইন বদলাতে আর কত ধর্ষণ চাই? নির্ভয়ার বাবা-মা ক্ষুব্ধ

নিউজ টাইম কলকাতা ডট কম
ডিসেম্বর ২১, ২০১৫
news-image

নয়াদিল্লি: মেয়ের ওপর সবচেয়ে নারকীয় অত্যাচার চালানো নাবালক অপরাধীর মুক্তি স্থগিত রাখার আবেদন সুপ্রিম কোর্টে খারিজ হয়ে যাওয়ায় ক্ষোভ উগরে দিলেন নির্ভয়ার মা আশা দেবী। তবে নির্যাতিতা মেয়ের জন্য সুবিচারের দাবিতে তাঁদের লড়াই চলবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন নির্ভয়ার বাবা বদ্রী সিংহ। আইন বদলাতে আর কত নির্ভয়া চাই! প্রশ্ন করেছেন তাঁরা।

তবে শুধুমাত্র দিল্লি গণধর্ষণকাণ্ডে মৃত নির্ভয়া তথা জ্যোতির মা-ই নন! বর্তমানে এই প্রশ্ন তুলছে সমাজের একটা বড় অংশ! শুধুমাত্র নাবালক হওয়ার সুবাদে যেভাবে একটা জঘন্য অপরাধ করেও পার পেয়ে গেল এই ছেলেটি, তাতে অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন, আর কবে বদলাবে আইন?

নির্ভয়ার নাবালক ধর্ষণকারীকে নির্ধারিত তিন বছরের মেয়াদ কাটিয়ে ফেলার পর সংশোধনাগার থেকে ছেড়ে দেওয়ার বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন দিল্লি মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন স্বাতী মালিওয়াল। কিন্তু তা খারিজ করে দেয় শীর্ষ আদালত। এ ব্যাপারে ‘স্পষ্ট আইনি অনুমোদন প্রয়োজন’ বলে অভিমত তাদের।

এ ব্যাপারেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন নির্ভয়ার বাবা-মা। বদ্রী সিংহ বলেন, সুপ্রিম কোর্ট আমাদের পক্ষে রায় দেবে বলে খুব একটা আশাও ছিল না। কিন্তু আমি জানতে চাই, এ দেশে আইন বদলাতে আর কত নির্ভয়ার দরকার! তিনি এও বলেন, আমজনতাকে নিয়ে উদ্বেগ নেই আদালতের। এই লড়াই তো শুধু নির্ভয়াকে নিয়ে নয়, যে দেশে এমন আইন আছে, সে দেশের নিরাপত্তাহীন সব মেয়ের জন্য।

জুভেনাইল আদালত বদল না হওয়া তাঁর লড়াই চলবে বলে ঘোষণা করে আশা দেবী বলেছেন, আমি হার মানব না। সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত আমাকে বিরত রাখতে পারবে না। আমাকে দীর্ঘ লড়াই চালাতে হবে। বিল পাস হয়ে আইনের বদল হওয়া পর্যন্ত আমি লড়ে যাব।

তিনি এও বলেন, আদালত বলছে, আইনে নাবালক অপরাধীর আর সাজার সংস্থান নেই। তাহলে ধর্ষণে দোষী বাকিদের কেন এখনও ফাঁসিতে ঝোলানো হয়নি?